Wellcome to National Portal
টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (স্রেডা) বিদ্যুৎ বিভাগ, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়
Text size A A A
Color C C C C

সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

সরকারী দপ্তরে জ্বালানি সাশ্রয়ের উপায় শীর্ষক প্রশিক্ষণ এর প্রথম ব্যাচ অনুষ্ঠিত


প্রকাশন তারিখ : 2022-09-15

টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ২০৩০ সালের মধ্যে ২০% জ্বালানি সাশ্রয়ের অভিলক্ষ্য সামনে রেখে কাজ করে যাচ্ছে। উক্ত লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের উদ্দেশ্যে সুনিদিষ্ট কর্মকৌশল ভিত্তিক জ্বালানি দক্ষতা ও সংরক্ষণ সংক্রান্ত মাস্টার প্ল্যান আপটু ২০৩০ প্রণয়ন করা হয়েছে।

 

এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য মাস্টারপ্ল্যানে মোট ৫(পাঁচ)টি কার্যক্রম চিহ্নিত করা হয়েছে, যার মধ্যে জ্বালানি দক্ষতা ও সংরক্ষণ বিষয়ে প্রয়োজনীয় সচেতনতা বৃদ্ধি করা অন্যতম একটি কার্যক্রম। সরকার ইতোমধ্যে “জ্বালানি দক্ষতা ও সংরক্ষণ বৃদ্ধি কার্যক্রমে অর্থায়ন” শীর্ষক একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে বিভিন্ন শিল্প কারখানায় জ্বালানি দক্ষ যন্ত্রপাতি স্থাপন/ প্রতিস্থাপনে স্বল্প সুদে ঋণ প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়াও স্রেডা সরকারী খাতের শিল্প কলকারখানায় জ্বালানি দক্ষতা উন্নয়নের জন্য সময়ে সময়ে জ্বালানি নিরীক্ষা কার্যক্রমও পরিচালনা করছে।

এছাড়াও বর্তমান বৈশ্বিক জ্বালানির সংকট মোকাবেলায়, বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রত্যেক সরকারি দপ্তর/সংস্থার বিদ্যুৎ খরচ ২৫% পর্যন্ত কমানোর জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এই নির্দেশনামতে প্রত্যেক দপ্তর/সংস্থাকে জ্বালানি খরচ কমানোর লক্ষ্যে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে। এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আপনাদের কি কি কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে সে বিষয়ে নির্দেশনা পাবেন। এই প্রশিক্ষণটি দেশের সকল দপ্তর সংস্থার প্রতিনিধি কর্মকর্তাদের নিয়ে ধারাবাহিকভাবে আয়োজন করা হবে। যাতে জ্বালানি সাশ্রয়ে প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে অন্তত একজন এম্বাসেডর তৈরী করা যায়। 

 

স্রেডা’র সদস্য (জ্বালান দক্ষতা ও সংরক্ষণ) জনাব ফারজানা মমতাজ এর সভাপতিত্বে প্রশিক্ষণটির উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ বিভাগের মাননীয় সচিব জনাব মোঃ হাবিবুর রহমান এর পক্ষে জনাব মোঃ নাজিম উদ্দিন, অতিরিক্ত সচিব প্রশাসন, বিদ্যুৎ বিভাগ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বর্তমান বৈশ্বিক জ্বালানি সংকটে মুহূর্তে জ্বালানির সাশ্রয়ী ব্যবহার ও সংরক্ষণই সবোর্ত্তম উপায় বলে অভিমত ব্যক্ত করে। উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্রেডা’র চেয়ারম্যান (গ্রেড-১) জনাব মুনিরা সুলতানা, এনডিসি।

 

এ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারের জ্বালানি দক্ষতা ও সংরক্ষণ বৃদ্ধি কার্যক্রম আরো ব্যাপক সম্প্রসারণ করা সম্ভব হবে। এ প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারীগণ  শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র, লাইটিং সিস্টেম, ভেন্টিলেশন সিস্টেমসহ সরকারী দপ্তরের বিভিন্ন জ্বালানি সাশ্রয় উপায় ও জ্বালানি ব্যবস্থাপনা ও জ্বালানি মনিটরিং বিষয়ে অবগত হবেন। এছাড়াও জ্বালানি দক্ষতার উন্নয়ন-সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম, জ্বালানি দক্ষ যন্ত্রপাতির ব্যবহার ও জ্বালানি ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি বিষয়ে সুস্পষ্ট ধারণা লাভ করবে। ফলে, প্রশিক্ষিত কর্মকর্তাগণ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে লব্ধ জ্ঞান ব্যবহারের মাধ্যমে জ্বালানি সাশ্রয়ে সরকারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়তা করবে।

 

আয়োজিত উক্ত প্রশিক্ষণের প্রথম ব্যাচে মোট ৩৫ জন অংশগ্রহণকারীকে প্রশিক্ষণ প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।