টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (স্রেডা) বিদ্যুৎ বিভাগ, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৬ মার্চ ২০২০

কৌশলগত পরিকল্পনা

রুপকল্প

স্রেডা  টেকসই জ্বালানিকে উন্নত করবে এবং জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত এবং কার্বন নিঃসরণ কমাতে একটি জ্বালানি সচেতন জাতি গড়বে।

লক্ষ্য

নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও জ্বালানি দক্ষতার উন্নতি সাধন এবং তার প্রসার ঘটানোর জন্য স্রেডার লক্ষ্য/মিসন-সমূহ নিম্নরুপঃ

  • জীবাশ্ম জ্বালানির উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে নবায়নযোগ্য জ্বালানির উপর জোর দেওয়া
  • জ্বালানি সাশ্রয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া
  • নতুন সম্ভাবনাময় টেকসই জ্বালানির জন্য ক্রমাগত অনুসন্ধান করা

প্রধান লক্ষ্যসমূহ

দায়িত্ব এবং কর্তব্য বিবেচনা করে স্রেডা নিম্নলিখিত প্রধান মূল্যবোধ/মূল মান-সমূহ বজায় রেখে এর কার্যক্রম পরিচালনা করছে:

    - টেকসই জ্বালানি সম্পর্কিত নীতি, আইন, বিধি-বিধান বাস্তবায়ন করা।

    - বাইরের পরিবেশের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করা।

    - উদ্দেশ্য সাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে একই প্ল্যাটফর্মে নিয়ে আসা।

    - পরিবেশের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া এবং তা রক্ষা করা।

    - পরিবেশ এবং সামাজিকভাবে জবাবদিহিতামূলক উপায়ে লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য      

      বাস্তবায়ন করা।

    - সংগঠনে একদল মেধাবী লোক তৈরীর চেষ্টা করা যারা হবেন ত্যাগী, প্রণোদিত এবং স্রেডা এর লক্ষ্য অর্জনে উদ্ভাবনশীল।

লক্ষ্যসমূহ

রুপকল্প এবং উদ্দেশ্য অনুযায়ী স্রেডা নিম্নলিখিত লক্ষ্যসমূহ নির্ধারণ করেছে:

  • নবায়নযোগ্য জ্বালানির উৎপাদন বাড়ানো
  • জ্বালানি সাশ্রয়ের পরিমাণ বাড়ানো।

উদ্দেশ্যাবলী

লক্ষ্য অর্জনের জন্য উদ্দেশ্যাবলী হলো:

- ২০২০ সালের মধ্যে নবায়নযোগ্য জ্বালানি হবে মোট বিদ্যুৎ উৎপাদনের ১০% (২০০০ মেগাওয়াট)

- ২০২১ সালের মধ্যে জ্বালানি সাশ্রয় হবে মোট জ্বালানি খরচের ১৫% এবং ২০৩০ সালের মধ্যে হবে ২০%

কৌশল

উদ্দেশ্যাবলী বাস্তবায়নের জন্য কৌশলসমূহ নিম্নরুপ:

  • স্রেডাকে এর কর্মসূচী বাস্তবায়নের জন্য প্রশিক্ষিত, দক্ষ এবং যোগ্য জনবল নিয়োগ করতে হবে
  • টেকসই জ্বালানি এবং জ্বালানি কার্যকারিতায় বিনিয়োগ বাড়ানো এবং জ্বালানি সাশ্রয়ে জনগনকে উদ্বুদ্ধ করতে সহায়ক নীতি, বিধি-বিধান প্রণয়ন করা
  • স্রেডা এর পরিকল্পনা/বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় সংশ্লিষ্টদেরকে সম্পৃক্ত করা
  • বিনিয়োগের জন্য ব্যবসায়ী আকর্ষণের জন্য বিভিন্ন ব্যবসায়িক মডেল উন্নয়ন করা
  • টেকসই জ্বালানির উন্নয়নে বিনিয়োগের জন্য বিভিন্ন তহবিল পাবার সুযোগ সনাক্ত এবং বিশ্লেষণ করা
  • টেকসই জ্বালানি উন্নয়নে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য সমর্থন আকৃষ্ট করতে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ব্যবহার করা (প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক, ছাত্র/ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা, পেশাজীবী ইত্যাদি)

কর্মপরিকল্পনা

লক্ষ্য অর্জন করতে স্রেডা নিম্নলিখিত কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করেছে:

  • কর্মচারী নিয়োগ করা এবং তাদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদান করা। দায়িত্ব অনুযায়ী কর্মকর্তাদেরকে দেশে বিদেশে বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রদান করা।
  • এর কিছু বিশেষায়িত কর্মকান্ডে স্বল্পমেয়াদী এবং দীর্ঘমেয়াদী দক্ষ এবং অভিজ্ঞ পরামর্শক নিয়োগ করতে হবে।
  • বিদ্যমান নীতি, বিধি-বিধান পর্যালোচনা করা এবং দরকার হলে নিজস্ব কিংবা বহিরাগত বিশেষজ্ঞ দ্বারা সংশোধিত নতুন ডকুমেন্ট প্রস্তুত করা।
  • নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়নের জন্য বছরওয়ারী লক্ষ্য নির্ধারণ করা এবং লক্ষ্য অর্জনের জন্য কর্মসূচী প্রস্তুত করা।
  • নবায়নযোগ্য জ্বালানি এবং জ্বালানি কার্যকারিতা উন্নয়নের অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ করা এবং অনলাইন ডাটা সংরক্ষণ পদ্ধতি গড়ে তোলা।
  • বাজারে সহজলভ্য পণ্যের মান নিশ্চিত করা, নবায়নযোগ্য জ্বালানি এবং জ্বালানি কার্যকর পণ্য মানোপযোগী করা।
  • এর সংশ্লিষ্টদের সাথে দ্রুত যোগাযোগ করা, তথ্য ডাটাবেজ গড়ে তোলা। ফেসবুক/টুইটার ব্যবহারের অপশন অনুসন্ধান করা।
  • নবায়নযোগ্য জ্বালানির কার্যক্রম সমন্বয় এবং পর্যবেক্ষণ করার জন্য সংশ্লিষ্টদের সাথে নিয়মিত বৈঠকে বসা।
  • বিভিন্ন অর্থসংস্থান সংক্রান্ত ব্যবসায়িক মডেল উন্নয়নের জন্য নিজস্ব এবং বহিরাগত বিশেষজ্ঞ নিয়োগ করা।
  • টেকসই জ্বালানি উন্নয়নে বিনিয়োগের জন্য বিভিন্ন তহবিল পাওয়ার সুযোগ সনাক্ত এবং বিশ্লেষণ করা।
  • জ্বালানি কার্যকারিতার জন্য ব্যাপক পরিকল্পনা প্রস্তুত করা এবং বাস্তবায়নাধীন জ্বালানি সাশ্রয় ব্যবস্থাসমূহের জন্য কর্মকান্ড এবং অপশন সনাক্ত করা।
  • সচেতনতা সৃষ্টির জন্য বিভিন্ন কর্মসূচী যেমন: ছাত্র/ছাত্রীদের অংশগ্রহনে শিক্ষা কার্যক্রম, রচনা প্রতিযোগিতা, সেমিনার/সিম্পোজিয়াম/ টিভি টকশো, মেলা, ভিডিও ক্লিপ ইত্যাদির আয়োজন এবং বাস্তবায়ন করা।
  • গ্রীন বিল্ডিং সার্টিফিকেশন, নির্ধারিত জ্বালানি ভোক্তাদের জন্য জ্বালানি নিরীক্ষক নিয়োগ, বৈদ্যুতিক সরঞ্জামের জন্য এনার্জি স্টার রেটিং এর জন্য কর্মসূচী পরিকল্পনা করা।
  • মানসম্মত পণ্য এবং বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম পরীক্ষার জন্য পরীক্ষাগারের ব্যবস্থা/সুবিধা সৃষ্টি করা।
  • নবাযনযোগ্য জ্বালানির সম্ভাব্না মূল্যায়নের জন্য বিভিন্ন সমীক্ষা পরিচালনা করা এবং এর জন্য নতুন প্রযুক্তি এবং মডেল পরীক্ষামূলকভাবে শুরু করা।
  • প্রতিষ্ঠানের দ্রুত এবং কার্যকর কর্মকান্ডের জন্য আইটিভিত্তিক অবকাঠামো গড়ে তোলা।

Share with :

Facebook Facebook